সড়কে প্রাণ গেলো মায়ের, বেচে রইলো তিনদিনের নবজাতক

প্রকাশিত: ৯:৫১ অপরাহ্ণ, জুন ২৯, ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদন:

একটি ক্লিনিকে সন্তান প্রসব করেন যুথি খাতুন। তিনদিন সেই ক্লিনিকে থাকার পর প্রিয় সন্তানকে নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। সে সময় ঘুণাক্ষরেও কেউ ভাবতেও পারেনি যুথির আর বাড়ি ফেরা হবে না। কিন্তু বাস্তবেই তাই হলো। সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেলেন তিনি। তবে তার তিনদিনের সন্তান বেঁচে যায়।

এদিকে দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন যুথি খাতুনের মা ও তার ছোট ভাই। শনিবার (২৯ জুন) বিকেল ৫টার দিকে বগুড়ার নন্দীগ্রামের কাথম-কালিগঞ্জ সড়কের দলগাছা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, উপজেলা সদরের হেলথ কেয়ার ক্লিনিকে তিনদিন আগে সন্তান প্রসব করেন যুথি খাতুন। শনিবার বিকেলে তিনি ও তার মা জেসমিন (৪৫) এবং ছোট ভাই জিহাদের (১৭) সঙ্গে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে দলগাছা এলাকায় পৌছালে বিপরীত দিক থেকে আসা আরেকটি অটোরিকশার সঙ্গে তাদের রিকশার সংঘর্ষ হয়। এতে দুটি অটোরিকশাই উল্টে একই পরিবারের তিনজন আহত হন। তবে নবজাতক অক্ষত থাকে।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাদের উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক যুথি খাতুনকে মৃত ঘোষণা করেন। অপর দুজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

নন্দীগ্রাম থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মজিবুর রহমান বলেন, অটোরিকশাটি জব্দ করা হয়েছে। চালক পালিয়ে গেছে। যুথি খাতুন নামের একজন মারা গেলেও তার তিনদিনের সন্তান অক্ষত রয়েছে।