পুতিনকে পশ্চিমা ঐক্যের বার্তা পাঠাতে চান শলৎস

প্রকাশিত: ৪:৪৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক রিপোর্টঃ 
ওয়াশিংটন সফরের আগে জার্মান চ্যান্সেলর শলৎস ইউক্রেনের জন্য মার্কিন সহায়তা নিয়ে জটিলতা দূর হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন। মার্কিন কংগ্রেসে বাজেট নিয়ে দুই রাজনৈতিক শিবিরের সংঘাত অবশ্য এখনো দূর হয় নি। এক প্রতিবেদনে এমনটি জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম ডয়চেভেলে।হাঙ্গেরির আপত্তি দূর করে ইউরোপীয় ইউনিয়ন গত সপ্তাহে ইউক্রেনের জন্য দীর্ঘমেয়াদি আর্থিক সহায়তার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু মার্কিন কংগ্রেসে রাজনৈতিক জটিলতার কারণে সে দেশ থেকে এখনো প্রয়োজনীয়তা সহায়তা পাচ্ছে না ইউক্রেন। ওয়াশিংটন সফরের প্রাক্কালে জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎস দ্রুত সেই অচলাবস্থা দূর হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন।

বার্লিনে ফ্রান্সের নতুন প্রধানমন্ত্রী গাব্রিয়েল আটালের সঙ্গে আলোচনার পর তিনি বলেন, ইউরোপ ও অ্যামেরিকা ইউক্রেনের জন্য বড় অংকের সহায়তা দিলে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের অপেক্ষার মতলব বানচাল হয়ে যাবে। পশ্চিমা বিশ্বের সহায়তার অভাবে ইউক্রেন নতি স্বীকার করতে বাধ্য হবে, এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে না। শলৎসের মতে, পুতিনের জন্য অ্যামেরিকা ও ইউরোপের স্পষ্ট বার্তা পাঠানো উচিত।

এদিকে ওয়াশিংটনে ক্ষমতাসীন ডেমোক্র্যাট ও বিরোধী রিপাব্লিকান দলের মধ্যে বাজেট নিয়ে সংঘাত আরো জোরালো হচ্ছে। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ইউক্রেন ও ইসরায়েলের জন্য সহায়তার যে যৌথ প্রস্তাব পেশ করেছেন, বিরোধী রিপাব্লিকান দল তার পথে বাধা সৃষ্টি করে আসছে। এবার তারা পালটা প্রস্তাবে শুধু ইসরায়েলের জন্য সহায়তা অনুমোদন করাতে চাইছে। বাইডেন প্রশাসন সেই উদ্যোগ বানচাল করতে ভেটো শক্তি প্রয়োগের হুমকি দিচ্ছে। রাজনৈতিক চাল না চেলে দ্রুত নিরাপত্তা সংক্রান্ত সরকারি প্রস্তাব অনুমোদনের আহ্বান জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

গত কয়েক মাসে দুই পক্ষের মধ্যে দরকষাকষির পর রিপাব্লিকান দলের সম্মতি আদায় করতে বাইডেন প্রশাসন অ্যামেরিকার অভিবাসন নীতি ঢেলে সাজানো এবং সীমান্তে নিরাপত্তার জন্য বাড়তি তহবিল সংক্রান্ত আইনের খসড়া পেশ করেছে। এর বদলে বিরোধীরা ১ হাজার ১৮০ কোটি ডলার অংকের সহায়তা বিল মেনে নেবে বলে আশা করা হচ্ছে। হোয়াইট হাউস মনে করিয়ে দিয়েছে, যে সেই অর্থ কাজে লাগিয়ে ইউক্রেন, ইসরায়েল ও তাইওয়ানের নিরাপত্তার পাশাপাশি খোদ অ্যামেরিকার বুকে ইহুদি ও ইসলামি উপাসনালয়ের সুরক্ষা জোরদার করা হবে। ফিলিস্তিনিদের জন্য মানবিক সাহায্যও জোরদার করা হবে।

বিচ্ছিন্নভাবে শুধু ইসরায়েলের জন্য সহায়তার প্রস্তাবের বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্টের ভেটোর হুমকি সম্পর্কে বিরোধী রিপাব্লিকানরা তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে। সংসদের নিম্ন কক্ষের স্পিকার মাইক জনসন বলেন, এই হুমকি বিশ্বাসঘাতকতার কাজ। সবচেয়ে কঠিন সময়ে অ্যামেরিকার সহযোগী দেশ ও মার্কিন সেনাবাহিনীর জন্য সহায়তার পথে বাধা সৃষ্টি করায় তিনি বাইডেনের কড়া সমালোচনা করেন। উল্লেখ্য, গত নভেম্বর মাসেই প্রস্তাবটি নিম্ন কক্ষের অনুমোদন পেয়েছে। তবে বিষয়টি নিয়ে রিপাব্লিকান দলের মধ্যেও বিভাজন লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সাবেক প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা মেক্সিকো সীমান্তে আরো কড়া পদক্ষেপের পক্ষে সওয়াল করছেন।