খালেদা জিয়ার সঙ্গে গর্হিত আচরণ করেছে ইউনাইটেড হাসপাতাল: ড্যাব

প্রকাশিত: ১২:২৬ অপরাহ্ণ, জুন ২৭, ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার প্রতি সরকারের প্রতিহিংসা ও অমানবিক আচরণের তীব্র নিন্দা, ঘৃণা ও প্রতিবাদ জানিয়ে চিকিত্সকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) বলেছে, খালেদা জিয়ার সঙ্গে গর্হিত আচরণ করেছে ইউনাইটেড হাসপাতাল। পাশাপাশি খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সংগঠনটি।

এক বিবৃতিতে সংগঠনটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন আল রশিদ ও মহাসচিব ডা. মো. আবদুস সালাম এসব বলেন।

তারা বলেন, সময়ক্ষেপণ না করে অবিলম্বে খালেদা জিয়াকে মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার সুযোগ দেওয়ার আহ্বান জানাই।

বিবৃতিতে তারা বলেন, খালেদা জিয়া গত শুক্রবার ২১ জুন গভীর রাতে গুরুতর অসুস্থ হলে ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নিকট অ্যাম্বুলেন্স ও জরুরি জীবন রক্ষাকারী ওষুধের সহযোগিতা চাওয়া হয়, কিন্তু ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তা সরবরাহ করতে অপারগতা প্রকাশ করে যা মারাত্মক বিবেক বর্জিত ও অমানবিক কাজ। মানুষের জীবন রক্ষাকারী প্রয়োজনীয় ওষুধ ও অ্যাম্বুলেন্স সরবরাহ না করে ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যে গর্হিত কাজ করেছে তা এদেশের জনগণ মনে রাখবে এবং যথাসময়ে এর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তারা বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার বয়স এখন ৭৯ বছর। শর্তসাপেক্ষে সরকারের নির্বাহী আদেশে মুক্তি পেলেও প্রবীণ বয়সেও খালেদা জিয়া কার্যত কারাবন্দি। তিনি দীর্ঘদিন ধরেই নানা রোগে আক্রান্ত। ২০১৮ সালে কারাগারে যাওয়ার পর তিনি আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন। দীর্ঘ চার বছর তার যথাযথ কোনো চিকিৎসা হয়নি। কারাগারে অমানবিক পরিবেশেও তিনি অনেক নতুন নতুন রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। হার্ট, লিভার, কিডনি ও চোখের সমস্যা ছাড়াও আর্থ্রাইটিস এবং কোভিড-১৯ আক্রান্ত ও কোভিড পরবর্তী জটিলতায় তার শারীরিক অবস্থা খুবই ঝুঁকিপূর্ণ।

তাই এমন একজন রাজনীতিবিদের বার্ধক্যের এ কঠিন সময়ের কথা বিবেচনা করে সরকার রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে সময়ক্ষেপণ না করে খালেদা জিয়ার প্রতি মানবিক ও সহানুভূতিশীল আচরণ প্রদর্শন করে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠানোর জোর দাবি জানায় ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)।