আমচাষিদের আশীর্বাদ হয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বৃষ্টি

প্রকাশিত: ২:০৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২৪

জেলা প্রতিনিধি,চাঁপাইনবাবগঞ্জঃ 

চাঁপাইনবাবগঞ্জে দীর্ঘদিন পর বৃষ্টি হয়েছে। এতে আমচাষিদের মনে স্বস্তি দেখা দিয়েছে। বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টায় শুরু হয় বৃষ্টি।মুষলধারে না হলেও কৃষি বিভাগ বলছে আমের জন্য আশীর্বাদ এই বৃষ্টি। তবে আমচাষিরা বলছেন, কিছু আমের মুকুলের ক্ষতি হতে পারে এই বৃষ্টিতে।সদর উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের আমচাষি আসমাউল ইসলাম বলেন, রাত থেকেই আকাশে মেঘ ছিল। হঠাৎ সকালে বৃষ্টি শুরু হয়। এতে কিছু আমের মুকুলের ক্ষতি হলেও সব মিলিয়ে উপকার হয়েছে। কারণ আমরা সেচ খরচ থেকে বেঁচে গেলাম। বাগানে আর সেচ দেওয়া লাগবে না। আর মুকুল খুব একটা বড় হয়নি, সেক্ষেত্রে তেমন ক্ষতি হবে না।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ম্যাঙ্গো ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব আহসান হাবিব বলেন, আগের যুগের মানুষ বলতেন ফাল্গুনের বৃষ্টি মানে আগুন। এই বৃষিতে কিছুটা আমের মুকুলের ক্ষতি হবে। তবে আম চাষিদের সেচ খরচ বাঁচবে। অন্যান্য ফসলেরও উপকার হবে। আর যে মুকুলগুলো ফুটেছে সেগুলোর কিছুটা ক্ষতি হবে।শিবগঞ্জ ম্যাংগো প্রোডিউসার কো-অপারেটিভ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল খান শামীম বলেন, ফাল্গুনের বৃষ্টিতে কিছুটা ক্ষতি হয় আমের মুকুলের। তবে এবার তা হবে না, কারণ আমের মুকুল এখনো খুব ছোট। এতে কিছুটা উপকার হবে। কিন্তু এখন একটি স্প্রে করা দরকার।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপপরিচালক (শস্য) কে এম কাওছার হোসেন বলেন, মুকুল ছোট রয়েছে, ক্ষতি হবে না। বরং বিভিন্ন শস্যচাষিদের উপকারে এসেছে এই বৃষ্টি। এছাড়া আমচাষিদের সেচ খরচ বাঁচবে এই বৃষ্টিতে। তবে হ্যাঁ, কিছু আমের মুকুলের ক্ষতি হবে। তা পরিমাণে অনেক কম।