আড়াই ঘণ্টা পর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক

প্রকাশিত: ১:৪২ অপরাহ্ণ, জুন ২৯, ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদন:

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের ফৌজদারহাটে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাস উল্টে এক যাত্রী নিহত ও ১৫ জন আহত হয়েছেন। দুর্ঘটনার পর প্রায় আড়াই ঘণ্টা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চট্টগ্রামমুখী লেনে যান চলাচল বন্ধ ছিল। পরে বেলা সাড়ে ১১টার পর থেকে চলাচল স্বাভাবিক হয়।

দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন চট্টগ্রাম শহরের বড়পোল আবাসিক এলাকার মৃত আবু জাফরের ছেলে আবুল কাশেম (৬৪)। তিনি বাসের যাত্রী ছিলেন।

শনিবার (২৯ জুন) সকাল ৯টার দিকে ফৌজদারহাটের ফকিরহাট সলিমপুর এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বারআউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের ওসি খোকন চন্দ্র ঘোষ।

তিনি জানান, সকাল ৯টার দিকে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি যাত্রীবাহী বাস উল্টে গেছে। পরে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দুর্ঘটনা কবলিত বাস উদ্ধার করলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকাল ৯টার সময় চট্টগ্রাম থেকে ফেনীমুখী স্টার লাইন পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আইল্যান্ডে উল্টে দুমড়ে মুচড়ে যায়। এসময় ঢাকা থেকে চট্টগ্রামমুখী লেনে যান চলাচল বন্ধ থাকায় শত শত গাড়ি প্রায় আড়াই ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকে। এতে যাত্রীদের অনেক ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে।

বারআউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের ওসি খোকন চন্দ্র ঘোষ জানান, দুর্ঘটনায় আবুল কাশেম নামে একজন নিহত ও ১৫ জন আহত হয়েছেন। পরিবারের অনুরোধে নিহতের মরদেহ তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। দুর্ঘটনা কবলিত বাস উদ্ধার হলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। বাসটি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।